মেনু নির্বাচন করুন

গ্রাম আদালত

ভূমিকাঃ-

       গ্রামের ছোট ছোট দেওয়ানী ও ফোজদারী মামলা নিষ্পতির লক্ষ্যে ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় যে আদালত গঠন করা হয়, তাকে গ্রাম আদালত বলে।

গ্রাম আদালতঃ
গ্রামাঞ্চলের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দেওয়ানী ও ফৌজদারী বিরোধ স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তি করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় যে আদালত গঠিত হয় সে আদালতকে গ্রাম আদালত বলে।

#গ্রাম আদালত আইন দ্বারা গঠিত একটি আদালত।
# গ্রাম আদালত আইন ২০০৬ অনুযায়ী ২৫,০০০/- পর্যন্ত ফৌজদারী ও দেওয়ানী বিরোধ নিষ্পত্তি করতে পারে।
# ৫ জন সদস্য নিয়ে গ্রাম আদালত গঠিত হয়।
# ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রাম আদালতের চেয়ারম্যান।
 গ্রাম আদালত যে সব বিষয় নিষ্পত্তি কর থাকেঃ

ফৌজদারীঃ
# চুরি সংক্রান্ত বিষয়াদী। ৥ঝগড়া বিবাদ# শত্রুতামূলক ফসল বাড়ি বা অন্য কিছুর ক্ষতিসাধন। # গবাদী পশু হত্যা বা ক্ষতিসাধন।
প্রতারনামূলক বিষয়াদী# শারীরিক আক্রমণ, ক্ষতিসাধন বল প্রয়োগ করে ফুলা ও জখম করা।
# গচ্ছিত কোন মূল্যবান দ্রব্য বা জমি আত্মসাৎ

 

দেওয়ানী বিষয়ঃ
# স্থাবর সম্পত্তি দখল বা পুনরুদ্ধার।
# অস্থাবর সম্পত্তি বা তার মূল্য আদায়।
# অস্থাবর সম্পত্তি ক্ষতিসাধনের জন্য ক্ষতি পূরণ আদায়।
#কৃষি শ্রমিকদের প্রাপ্য মজুরী পরিশোধ ও ক্ষতিপূরণ আদায়ের মামলা।
# চুক্তি বা দলিল মূল্যে প্রাপ্য টাকা আদায়।